Film Review : Masaan

Masaan 
একেবারেই অন্য ধারার সিনেমা। বাস্তব আর কল্পনা মিশিয়ে পুরো ১০৯ মিনিট ধরে এগিয়ে চলা গল্পে জীবনের কিছু জটিল প্রশ্নের অভিনব সুরাহা পেয়ে যাবেন আপনি। উত্তর না কিন্তু, শুধু সুরাহা। কারণ সব প্রশ্নের উত্তর হয়না – হলেও সরাসরি না, সেক্ষেত্রে যে যার নিজের মত করে উত্তরটা বা সমাধানটা সাজিয়ে নিতে হয়। বরুণ গ্রোভার আর নীরজ ঘায়ওয়ানের মসৃণ চিত্রনাট্যে সেই বার্তা সুস্পষ্ট।

দুটো আলাদা আলাদা গল্প সমান্তরাল ভাবে চলছে, ঠিক যেমন রেল লাইন। প্রথম গল্পে দেবী (রিচা চাড্ডা) আর দ্বিতীয় গল্পে দীপক (ভিকি কৌশল) কেন্দ্রীয় চরিত্রে। দুটো চরিত্রই বেনারসে বড় হয়েছে। বিভিন্ন ঘাত প্রতিঘাত সহ্য করছে। ঘাত প্রতিঘাতের ধরন আলাদা যদিও। বর্ণবৈশম্য, ব্ল্যাকমেলিং, দুর্ঘটনা, গরীব হওয়ার জ্বালা, একা মেয়ে বিপদে পড়লে কিছু পুরুষের ছোঁকছোঁকানির পাশাপাশি জীবনের ছোট ছোট কিছু সুখ যেমন জলের সাথে খেলার আনন্দ, প্রথম sexual pleasure, গঙ্গাবক্ষে নৌকাভ্রমণ, চাকরি পাওয়া, প্রথম চুম্বন, কবিতা শোনা, নদীর ধারে বসে ঠান্ডা হাওয়া খাওয়া, ছোটখাটো gift রঙচঙে wrapping পেপারে মুড়ে আদান প্রদান, প্রথম প্রেম সবকিছু নিটোল ভাবে বর্ণনা করেছেন পরিচালক নীরজ ঘায়ওয়ান। এটি তাঁর প্রথম পরিচালনা। এর আগে অনুরাগ কাশ্যপের ‘Gangs of Wasseypur’-এ সহযোগী পরিচালকের কাজ করেছেন তিনি। সাথে পেয়েছেন অবিনাশ অরুণ ধাওয়ারের অসামান্য ক্যামেরার support. Indian Ocean কতৃক সুরারোপিত গানগুলো ভারী শ্রুতিমধুর। দুষ্মন্ত কুমারের কবিতা থেকে অনুপ্রাণিত ‘Tu kisi rail si’ গানটা অনেকক্ষণ মনে রিনরিন করে বেজে গেল hall থেকে বেরিয়ে আসার পরেও।

অভিনয়ে ভিকি কৌশল দুর্দান্ত। এর আগে Bombay Velvet, Luv Shuv Tey Chicken Khurana-তে ছোট চরিত্রে দেখা গেছে তাঁকে, কিন্তু মুখ্য চরিত্রে এই প্রথম তাঁর আত্মপ্রকাশ, অতএব debut. মুম্বাইতে বড় হওয়া আদ্যোপান্ত পান্ঞ্জাবী এই ২৭ বছরের নায়কটি কি আশ্চর্য রকম নিজেকে একটি small town, college goer boy-এর চরিত্রে বদলে দিয়েছেন সেটা সত্যিই দেখার মতো, প্রশংসার দাবী রাখে তাঁর প্রেমিকা শালু গুপ্তার চরিত্রে অভিনয় করা শ্বেতা ত্রিপাঠীও। ৩০ বছর বয়স হলেও কলেজ গার্লের ভূমিকায় শ্বেতা ভীষনভাবে যথাযথ। দুজনের ভালোবাসা – মানসিক তথা শারীরিক রসায়ন এতটাই সহজ স্বাভাবিক ভাবে চিত্রায়িত করেছেন পরিচালক যে কোনোসময়ই মনে হচ্ছিলনা ওদের সামনে ক্যামেরা নামক কোন বস্তু আছে এই তথ্যটা তাদের জানা ছিল। অসাধারণ অভিনয়ের জন্য প্রশংসার দাবী রাখেন সন্ঞ্জয় মিশ্র আর রিচা চাড্ডাও। তবে রিচার hair cut বা চুল বাঁধার ধরনে তাঁকে small town girl মনে হতে অসুবিধা হচ্ছিল।

মেসেজ: জীবন থেমে থাকেনা। আত্মহত্যা করে কোন সমস্যার চটজলদি সমাধান নিজের মতো করে করলেও যাঁরা প্রতিকূল পরিস্হিতিকে রোজ deal করতে করতে এগোয়, আসল শক্তিশালী তাঁরাই। মানুষ নিজের মনের মতন করে ভবিষ্যৎ সাজায়, সেটাকে বাস্তবায়িত করার জন্য দিনরাত লেগে থাকে। একটা ছোট্ট বক্ররেখা হঠাৎ করে সেই সমীকরণ উল্টে দিতে পারে যখন তখন। জীবন হঠাৎ হঠাৎ এমন একটা junction-এ ঠেলে দেয় যখন কিংকর্তব্যবিমুঢ় হওয়া ছাড়া দ্বিতীয় কোন উপায় আমাদের চোখে পড়েনা চট্ করে। আর এই বাজে অবস্হা থেকেই ঘুরে দাঁড়িয়ে যারা পিঠ সোজা করে হাঁটতে পারে, শাহরুখ খান নন, আসল বাজিগর তথা হিরো তাঁরাই কারণ life goes on.

Leave a Comments

Your email address will not be published. Required fields are marked *