সেই মেয়েটা

Editor’s note: This Poem has been sent to us by Parama Dasgupta in response to the beautiful poem titled  That Girl by Anindita Ganguly  published a couple of days back in probashionline. The poem tells the story of a girl who takes her own life  because she had lost hope with this world after she had been brutally assaulted. In the poem  the poet says ” but we would have stood by you”. The present poem titled  ‘The Girl Again’ is the reply from the girl to her mother as to why she took her life. The girl asks her mother ” why did you not hold me tight, assured me that all would be fine and that the assault was not my mistake”. She tells her mother that she is all around, only her mother has to look around and also implores her mother to tell all other mothers that an assault is never the mistake of the girl and a little compassion would save lives of many a hapless girls. Probashi editorial team thanks both Anindita and Parama for the brilliant weaving of words and telling us such a poignant tale.  

poem_revisited

Illustration by Rani Bhowani

চেয়েছিলাম বাঁচতে মা ,চোখে স্বপ্ন মনে সাধ।
ডেকেছিলাম এলে না, কেউ ছিলে না,সামনে খাদ.
ভুল করেছি , বলছ আজ,
কষ্ট কেন বুঝলে না ,জড়িয়ে কেন ধরলে না,
কাল পরালে মরণ সাজ।

ঠিক করি নি , ক্ষমা কর , একটা কথা রাখবে
সব মায়েদের আমার কথা , বুক ফুলিয়ে বলবে?
বুঝব জীবন অনেক বড় ,দুঃখ সরুক আড়ালে ,
শাস্তি পাবেই দোষী যারা, তোমরা ঘুরে দাঁড়ালে।

করতে যদি পারো মাগো ,দিছি তোমায় কথাটা।
তোমার কাছেই ফিরব মা গো ,তোমার ছোট্ট মেয়ে টা।
বৃষ্টি হয়ে ঝরবো গায়ে ,পূব হওয়াতে বইব
আম গাছ টা এ তাকিয়ে দেখো, পাতায় আমি দুলব।

সন্ধে হলে তুমি যখন খুজবে কোথায় আলো ।
জোনাই হয়ে বলব তোমায় -এই তো প্রদীপ -জ্বালো।
ফুল বাগানে প্রজাপতির সঙ্গে আমি উড়ব।
ইচ্ছে ডানায় ভর করে মা, জীবন টা কে খুঁজবো।

 

 

 

মেয়েটা
Editor’s Note: The original poem by Anindita Ganguly to which the above poem is a sequel.

সেই মেয়েটা চলছিল পথ নির্জনে
চেনা পথে ভয় ছিলনা তার মনে
এই বয়সে শরীর জোড়া ছন্দ তার
শুনলনা কেউ পথের বাঁকে সে চীৎকার —
আজ সকালে পাখায় সে যে ঝুলছিল
মায়ের বুকে পা জোড়া তার ঠেকছিল
মানুষ হয়ে বাঁচা ছিল দরকারি
এই কথাটাই বুঝলনা সে বোধ করি ।
সেই মেয়েটা বাঁচতে কেন শিখলনা
দু চোখে তার স্বপ্ন কেন বুনলনা
শরীর থেকে একটু কেন উঠলনা
হায়না এবং কুকুর গুলো শুনলনা –
সেই মেয়েটা মানুষ ছিল আসলে
শরীর শুধু যায় যে পশুর দখলে
চোখের জলে ভাসল কেন মন টা তার
প্রতিবাদের ভাষা কেন নিরুচ্চার?
এমনি করে ঝুলবে বলেই ভাবছিল?
পা জোড়া তার মায়ের বুকে ঠেকছিল
এই মেয়ে তোর চারপাশে আজ আমরা, তাই
শ্মশান থেকেও ফিরে আসিস, আমরা চাই।

Comments
  1. anindita mandal

Leave a Comments

Your email address will not be published. Required fields are marked *